করোনাভাইরাস দেশের ভঙ্গুর শাসনব্যবস্থা দেখিয়ে দিয়েছে: ফখরুল

করোনাভাইরাস দেশের ভঙ্গুর শাসনব্যবস্থা দেখিয়ে দিয়েছে: ফখরুল

.াকা, ২৫ এপ্রিল: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশের করণাভাইরাস প্রমাণ করেছে যে দেশের প্রশাসন কতটা নাজুক। আমাদের দেখিয়েছেন, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সম্পূর্ণরূপে ভেঙে গেছে, স্বাস্থ্য ব্যবস্থার অস্তিত্ব মনে হয় না। সাধারণ রোগীরা কোনও চিকিৎসা পান না। এটাই এখন দেশের বাস্তবতা। সরকারের একা নীতিমালা থাকায় লোকেরা করোন ভাইরাস নিয়ে উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে।

শনিবার গুলশানে একটি অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুল এ কথা বলেন। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান প্রদত্ত timesদ উপহার প্রদানের জন্য বিভিন্ন সময় নিখোঁজ ও নির্যাতিতা পরিবারের সদস্যদের পরিবারের পক্ষ থেকে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। বিএনপি মহাসচিব নিহত শিক্ষার্থী নুর আলম, নুরুজ্জামান ও মাহবুবুর রহমান বাপ্পির পরিবারের হাতে Eidদের উপহার তুলে দেন। তিনি বলেন, সারা দেশে গুম, খুন ও নির্যাতনে নিহত হাজার হাজার নেতাকর্মীর পরিবারকে উপহার দেওয়া হবে, তিনি বলেছিলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, করোনভাইরাস প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় যৌথ উদ্যোগ নিতে সরকার ব্যর্থ হয়েছিল। এক কথায়, তারা করোনাভাইরাস মোকাবেলায় পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে।

সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বিএনপির মহাসচিব বলেন, এখন রাজনৈতিক বিতর্কের সময় নয়, রাজনৈতিক প্রতিশোধ নেওয়ার সময় নয়। আসুন আমরা অহংকার না করে পুরো জাতিকে iteক্যবদ্ধ করে সমগ্র জাতির আগ্রাসনের মুখোমুখি হওয়ার চেষ্টা করি। সেই উদ্যোগ নিন।

সরকারের নীতির সমালোচনা করে তিনি বলেছিলেন, “রাষ্ট্র যখন নিপীড়ক হয়ে ওঠে, যখন রাষ্ট্র নিজেই নিখোঁজ হয় বা ক্রসফায়ার হয়, তখন জনগণ কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে?” আজ আমরা এমন একটি সরকার কর্তৃক নির্যাতিত হচ্ছি যার জন্য কোনও জবাবদিহি নেই। তারা নির্বাচিত সরকার নয়। তারা কেবল অস্ত্রশক্তি দ্বারা, বন্দুক এবং গুলি চালিয়ে ক্ষমতায় থাকে। মানুষের প্রতি কোন দায়বদ্ধতা নেই।

রুহুল কবির রিজভী, আমিনুল ইসলাম, ইশরাক হোসেন, আতিকুর রহমান রুমন, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু ও ইয়াসিন আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: সমকাল
এমএন / 25 এপ্রিল

Leave a Reply