বৃষ্টি-কাদায় গরুর ব্যাপারীদের সর্বনাশ

বেপারী -1

‘স্যার, দয়া করে আর বাজারের বৃষ্টি-কাদা নিয়ে লিখবেন না। এজন্য গ্রাহকরা কম আছেন। যদি তারা এটিতে বৃষ্টি এবং কাদা সম্পর্কে শুনে তবে তারা আর বাজারে যাবে না। আবহাওয়া আরও ভাল করার জন্য আমি আল্লাহর কাছে বার বার আহ্বান করছি। লাভ কোনও ব্যাপার নয়, কমপক্ষে একই দামে যাতে কোনও গরু বিক্রি না করে আমরা ঘরে ফিরতে পারি। ‘

বুধবার (২৯ জুলাই) দুপুর সোয়া একটায় সিরাজগঞ্জের গবাদি পশুর ব্যবসায়ী আনসার আলী ক্রেতাবিহীন পুরান Dhakaাকার রহমতগঞ্জ ক্লাব মাঠে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিচ্ছিলেন। এ সময় তিনি তার পাশে ঘুমিয়ে থাকা বেশ কয়েকজন কর্মীর দিকে ইঙ্গিত করে বলেন, Eidদের দিন বাদে Eidদের মাত্র দু’দিন বাকি রয়েছে। এ জাতীয় সময়ে তাদের দম ধরার উপায় থাকা উচিত নয়। কিন্তু কোনও গ্রাহক না থাকায় কোনও কাজ নেই, তাই তিনি ঘুমাচ্ছেন। ‘

মঙ্গলবার রাতে ও আজ সকালে বৃষ্টির কারণে রহমতগঞ্জের এই traditionalতিহ্যবাহী বাজারের গবাদি পশু ব্যবসায়ীরা সমস্যায় পড়েছেন। বৃষ্টির কারণে পুরো বাজার কাদামাটি হয়ে গেছে।

বেপারী-2

ঘটনাস্থলে দেখা গেছে, বাজারে ক্রেতা নেই, গরু কিনতে আসা স্বল্প সংখ্যক ক্রেতাই পছন্দসই গরু খুঁজে পাচ্ছেন না। জুতা হাঁটার সময় কাদায় আটকাতে হবে। অনেকে জুতো হাতে নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। বেশিরভাগ গরুর উপর কাদা। অনেক ব্যবসায়ীকে ক্রেতাদের শুকনো জায়গায় দাঁড় করানোর ব্যবস্থা করতে খালের সামনে বালু নিক্ষেপ করতে দেখা গেছে।

ফরিদপুরের গরুর ব্যবসায়ী তোফাজ্জল হোসেন জানান, গতকাল বিকেল থেকে রাত অবধি বাণিজ্য ভাল ছিল। ক্রেতাদের জমায়েত বেশ ভাল ছিল। তিনি দুই টাকারও কম গরু বিক্রি করতে পেরেছিলেন। তবে বৃষ্টির কারণে বাণিজ্য নষ্ট হয়ে গেছে।

বেপারী -3

তিনি জানান, তারা ২১ জনকে নিয়ে ৩১ টি গরু বাজারে এনেছে। সে বিক্রি করার জন্য বাড়িতে একটি গরু নিয়ে এসেছিল। তোফাজ্জল হোসেন এক লাখ thousand০ হাজার টাকা দাম চেয়েছিলেন। গতকাল এক ক্রেতা এক লাখ ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত মূল্য পরিশোধ করেছেন। কিছু বাড়লে তিনি গরুটিকে ছেড়ে দিতেন। সেই সময় বৃষ্টি হওয়ায় ক্রেতা আসেনি। আজ, একজন ক্রেতা জানিয়েছেন যে দামটি 120,000 টাকার চেয়ে 10,000 টাকা কম 10,000

বেপারী -4

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ব্যবসায়ী জানান, ঝুপড়ি ভাড়াটেদের প্রতিনিধিদের মাঠে বালু ফেলে দেওয়ার অনুরোধ করা সত্ত্বেও তারা কোনও উদ্যোগ নেননি। এ জাতীয় পরিবেশ থাকলে ক্রেতারা ভুলে গেলেও গরু কিনতে বাজারে আসবেন না বলে তিনি জানান।

এমইউ / এমএসএইচ / পিআর