অবশেষে মিডিয়া সেল গঠন করল স্বাস্থ্য অধিদফতর

স্বাস্থ্য -১

কোভিড -১৯ সহ স্বাস্থ্য বিভাগের সকল কার্যক্রম যথাযথভাবে কাভার করার জন্য স্বাস্থ্য বিভাগের এমআইএস (ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম) শাখার তত্ত্বাবধানে একটি ১৫ সদস্যের মিডিয়া সেল গঠন করা হয়েছে।

এমআইএস শাখার পরিচালক মো। মোহাম্মদ হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বাধীন কমিটির সদস্যরা কেবল গণমাধ্যমের সাথে কথা বলবেন। তবে এমআইএস শাখার পাঁচ সদস্যকে আপাতত স্বাস্থ্য বিভাগের মুখপাত্র হিসাবে কাজ করতে বলা হয়েছে।

তারা হলেন- ডাঃ আনোয়ারা শরীফ, ডাঃ শাহ মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, ডাঃ এ বি এম শামসুজ্জামান সেলিম, ডাঃ মোঃ মারুফুর রহমান এবং ডাঃ মোহাম্মদ আদনান খান। এই অফিসাররা ডিউটি ​​রোস্টার অনুসারে মুখপাত্র হিসাবে গণমাধ্যমের সাথে কথা বলবেন।

এমআইএস শাখার পরিচালক মো। মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, তিনটি টায়ারে তাকে নিয়ে গঠিত ১৫ সদস্যের সেলের কর্মকর্তারা মূলত গণমাধ্যমের সাথে কথা বলবেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিভিন্ন শাখা ও অপারেশন প্ল্যানের (ওপি) প্রধানরা তাদের গণমাধ্যমের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করবেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ড। নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, যারা তথ্য পেতে চান তারা মিডিয়া সেলের নীচের ইমেইল ঠিকানার মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন মিডিয়াসেল@mis.dghs.gov.bd, হটলাইন নম্বর 0175911447 এবং মিডিয়া সেলের মুখপাত্র নম্বর 01729050222

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সাম্প্রতিক এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে যে বিভাগের পরিচালক পদমর্যাদার কর্মকর্তা ছাড়া আর কোনও গণমাধ্যমে কথা বলতে পারে না। এই নির্দেশনার পর থেকে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে কথা বলতে নারাজ।

এখনও অবধি স্বাস্থ্য জরুরী অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক স্বাস্থ্য অধিদফতরের মুখপাত্র হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। আয়েশা আক্তার। স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের মৌখিক নির্দেশনা অনুযায়ী তিনি আর সেই পদে নেই। কোনও নতুনকে মুখপাত্র হিসাবে ঘোষণা করা হয়নি। ফলস্বরূপ, স্বাস্থ্য বিভাগে তথ্য পেতে মিডিয়া কর্মীদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। অবশেষে স্বাস্থ্য অধিদফতর গণমাধ্যমের সাথে কথা বলার জন্য একটি মিডিয়া সেল গঠন করে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের নতুন মহাপরিচালক অধ্যাপক ড। আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম সম্প্রতি জাগো নিউজকে বলেছিলেন যে তারা শিগগিরই বিভাগের মুখপাত্র হবেন যারা মিডিয়াতে কোন কর্মকর্তা তথ্য সরবরাহ করবেন তা বলবেন।

এমইউ / বিএ / পিআর