পাইকারিতে পেঁয়াজ বিক্রি বন্ধ, লাগাম টানতে খুচরা বাজারে অভিযান

সিটিজি

পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে খুচরা বাজারে প্রচার শুরু করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় পেঁয়াজের দাম নিয়ে কারসাজির জন্য 9 জন ব্যবসায়ীকে জরিমানা করা হয়েছিল।

এর আগে, রবিবার (২ সেপ্টেম্বর) জেলা প্রশাসন খাতুনগঞ্জে পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দামের বিরুদ্ধে ক্র্যাকডাউন শুরু করে। এই অভিযানের প্রতিবাদে সোমবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকালে পেঁয়াজ দোকানদাররা রাস্তা অবরোধ করে।

খাতুনগঞ্জের গুদাম রক্ষকরা পেঁয়াজ বিক্রি বন্ধ করে প্রতিবাদ করলেও জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত খুচরা বাজারে অভিযান চালায়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিরিন আক্তার ও মোঃ উমর ফারুক।

প্রশাসনের আধিকারিকরা বলছেন, পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম হঠাৎ বেড়ে যাওয়ায় খুচরা বাজারেও এর প্রভাব পড়ছে। ফলস্বরূপ, উভয় পক্ষ থেকে পেঁয়াজের বাজার অস্থির হয়ে উঠছে। পেঁয়াজের দাম যাতে না বাড়তে পারে সেজন্য পাইকারি ও খুচরা বাজারগুলিতে নিয়মিত প্রচার চালানো হবে।

অভিযানে দোষী সাব্যস্ত ব্যবসায়ী ও সংস্থাগুলি হলেন:

কর্ণফুলী মার্কেটের হাজা স্টোরের জন্য দুই হাজার টাকা, নিউ বিসমিল্লাহ স্টোরের জন্য দুই হাজার টাকা, কাশেম স্টোরের জন্য দুই হাজার টাকা এবং হাজী স্টোরের জন্য এক হাজার টাকা। একই সঙ্গে নূর মদিনা স্টোরে দুই হাজার টাকা, সাগর স্টোরের উপর দুই হাজার টাকা, মিলন স্টোরের এক হাজার টাকা, আরিফুল স্টোরের এক হাজার টাকা এবং আগ্রাবাদ চৌমুহনী মার্কেটের আলাউদ্দিন স্টোরের এক হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক বলেছিলেন, “খুচরা বাজারে এমন জায়গায় দেখা যায় যে পেঁয়াজ কম দামে কেনা হলেও ব্যবসায়ীরা সেগুলি প্রতি কেজি ১০ থেকে ১৫ টাকার বেশি দামে বিক্রি করছে।” ফলে তাদের জরিমানা করা হয়েছে। ‘

এদিকে, দেশের ভোক্তা সামগ্রীর বৃহত্তম পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জে পেঁয়াজের দাম আকাশচুম্বী নিয়ন্ত্রণের জেলা প্রশাসনের অভিযানের প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে প্রতিবাদ করছেন পেঁয়াজ দোকানদাররা।

সিটিজি

সোমবার (September সেপ্টেম্বর) রাত ১১ টার দিকে দোকানদাররা তাদের দোকানপাট বন্ধ করে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানায়।

ব্যবসায়ীদের মতে, ভারতে দাম বাড়ার কারণে খাতুনগঞ্জেও পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। এই পরিস্থিতিতে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত প্রতিদিন জরিমানা করছে। সুতরাং, যদি তাদের প্রতিদিন জরিমানা দিতে হয় তবে তারা ব্যবসা চালাতে পারবে না।

অভিযোগ রয়েছে যে বছরের এই সময়ে, ভারত হঠাৎ করে যখন পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিয়েছিল, তখন দেশের বাজার অস্থির হয়ে উঠল। চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে অনিয়ন্ত্রিতভাবে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। পেঁয়াজ কেজিপ্রতি 300 থেকে 300 টাকায় বিক্রি হয়েছিল। দীর্ঘ সময় স্থিতিশীল দামের পরে, পেঁয়াজের বাজার আবার অস্থির হয়ে উঠতে শুরু করেছে। আগের সিন্ডিকেটটি পর্দার আড়ালে কাজ করছে।

এদিকে, খাতুনগঞ্জে পেঁয়াজের দাম গত 15 দিনে দ্বিগুণ হয়েছে। 18 টাকার পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে 43 থেকে 45 টাকায়।

আবু আজাদ / এফআর / জেআইএম