নেগেটিভ রিপোর্ট পজিটিভ বলে মোটা অঙ্কের বিল আদায় সাহাবউদ্দিনে

jagonews24

রাজধানীর সাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নমুনা পরীক্ষার পরে করোনার প্রতিবেদনটি নেতিবাচক হলেও এটি ইতিবাচক হিসাবে ভর্তি হয়েছিল। পুলিশের অভিজাত বাহিনী একটি অভিযান পরিচালনা করে এর প্রমাণ পেয়েছে।

রবিবার (১৯ জুলাই) দুপুর থেকে রাত অবধি সাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অভিযান শেষে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো। সরোয়ার আলম।

তিনি বলেছিলেন যে সাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কোভিড -১৯ পরীক্ষার অনুমতি পাওয়ার আগে করোনার পরীক্ষা করা হয়েছিল এবং জাল রিপোর্ট দেওয়া হয়েছিল। অন্যদিকে, হাসপাতালের লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হয়েছে এক বছর আগে। এই অনিয়মের জন্য হাসপাতালটি সিল করে দেওয়া হবে।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম আরও বলেছিলেন, হাসপাতালের মালিক এবং সকল অপরাধে জড়িতদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করা হবে।

রবিবার (১৯ জুলাই) বিকেলে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত হাসপাতালে অভিযান শুরু করে। হাসপাতালের সহকারী পরিচালক মো। মোঃ র‌্যাব হাসপাতালের ইনভেন্টরি অফিসার আবুল হাসনাত ও শাহরিজ কবির সাদিকে গ্রেপ্তার করেছেন।

রাজধানীর গুলশান -২ এর সাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল স্বাস্থ্য অধিদফতরের অনুমোদন ছাড়াই র‌্যাপিড কিটযুক্ত কোভিড -১৯ রোগীর অ্যান্টিবডি পরীক্ষা করছিল। এন্টিবডি পরীক্ষার নামে তারা রোগীদের কাছ থেকে 3,000 থেকে 10,000 টাকা নিয়েছিল বলেও অভিযোগ রয়েছে।

জেইউ / এমএসএইচ