প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বাড়িতে কাল উঠছেন ভিক্ষুক নাজিম

বাড়ি

আগামীকাল (রোববার, ১ August আগস্ট) প্রধানমন্ত্রীর নির্মিত বাড়িতে উঠবেন নাজিম উদ্দিন নামের এই ভিক্ষুক। এইরকম কৃপণ জীবন শেষে তিনি ভেনপাটায় সেনানিবাসের মতো বাড়ি ছেড়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্মিত একটি আধুনিক বাড়িতে চলে যাবেন। নতুন বাড়ির চাবি তাঁর হাতে দেওয়া হবে।

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের গান্ধিগাঁও গ্রামের মৃত ইয়ার উদ্দিনের ছেলে নাজিম উদ্দিন তার ভেনাপাতা তাঁবুর মতো বাড়ি ঠিক করার জন্য দুই বছরের জন্য দশ হাজার টাকা ভিক্ষা করেছিলেন। কিন্তু করোনাভাইরাস বেকার মানুষের দুর্ভোগ সহ্য করতে না পেরে এবং এই অর্থ সরকারের ত্রাণ তহবিলে অনুদান দিয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে এলে তাঁর অনুদানের খবরটি পেয়ে তিনি নাজিম উদ্দিনের উদারতায় খুশী হয়ে নিজের তহবিল থেকে জমি, বাড়ি ও দোকান দান করার ব্যবস্থা করেন।

নাজিম উদ্দিন যে বাড়িতে এত দিন বেঁচে ছিলেন তা মূলত সরকারী খাস জমি। এমনকি নাজিম উদ্দিন এখনও অবধি জানতেন না। সরকারের এই খাস জমিও নাজিম উদ্দিনের নামে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। সরকার তাঁর নামে যে জমিতে বাস করত তার সম্প্রসারণের মাধ্যমে ১৫ শতাংশ জমি বরাদ্দ দিয়েছে। নাজিম উদ্দিনকে যাতে আর কখনও ভিক্ষা না করতে হয় সে জন্যও সরকার একটি দোকান গড়ে তুলেছে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় দরিদ্র নাজিম উদ্দিনের চিকিৎসার দায়িত্ব সরকার নিয়েছে। তার অসুস্থ মেয়ের ইতিমধ্যে চিকিৎসা করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার পেয়ে খুশি নাজিম উদ্দিন। “বাড়িটি প্রস্তুত,” তিনি সাংবাদিকদের বলেছেন। আমি আগামীকাল একটি নতুন বাড়িতে চলে যাব, ডিসি সাব ইবো। বাড়িটি পছন্দ হয়েছে। আমি এটা দেখে খুশি। ‘

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দীর্ঘজীবন ও মঙ্গল কামনা করে তিনি বলেছিলেন, “এই জাতীয় প্রধানমন্ত্রী 72২ বছর বয়সে আমার দেহ আর নেই। ধরুন আমি করোনার জন্য তাহাদাকে দিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী আমাকে যে উপহার দিয়েছেন তাতে আমি অত্যন্ত আনন্দিত সেখানে একটি উপহার। ঘরটি সব দিয়েছে I আমি আর কিছু চাই না। ‘

‘আমি আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করছি যেন তাঁকে (প্রধানমন্ত্রী) দীর্ঘ সময় বাঁচিয়ে রাখে। আল্লাহ যতদিন বেঁচে থাকুন তাকে শাসন (পরিচালনা) করার সুযোগ দিন। ‘

নাজিম উদ্দিনও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সামনে থেকে দেখার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন।

বাড়ি

শেরপুরের জেলা প্রশাসক আনার কালী মাহবুব বলেছেন, “প্রধানমন্ত্রী তাকে (নাজিম উদ্দিন) উপহার হিসাবে একটি বাড়ি উপহার দিতে পেরে খুশি। আমরা আগামীকাল (রবিবার) বাড়ির চাবি হস্তান্তর করব। আমরা তাকে একটি নতুন বাড়িতে নিয়ে যাব। ‘

ভিক্ষুক হয়েও অর্থ সাশ্রয় করে দান করে উদাহরণ স্থাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন সময় নাজিম উদ্দিনের প্রশংসা করেন। প্রধানমন্ত্রী বিশ্বের কাছে একটি উদাহরণ স্থাপন করেছেন বলেও মন্তব্য করেছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নাজিম উদ্দিন সারা বিশ্বে একটি দুর্দান্ত উদাহরণ স্থাপন করেছেন। এমন দুর্দান্ত মানবিক গুণ এমনকি অনেক ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে দেখা যায় না। তাঁর কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে।

এফএইচএস / এইচএ / জেআইএম