মসজিদে তারাবিহতে অংশ নিতে পারবেন ১২ মুসল্লি

মসজিদে তারাবিহতে অংশ নিতে পারবেন ১২ মুসল্লি

.াকা, ২৩ এপ্রিল: আসন্ন রমজানে তারাবিহারের নামাজ দেশের সকল মসজিদে অব্যাহত থাকবে। তবে করোনার পরিস্থিতির কারণে ইমাম, মুয়াজ্জিন ও দুজন হাফেজ সহ মোট 12 জন ভক্ত এতে অংশ নেবেন। এছাড়া ইফতার মাহফিলের নামে কোনও অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হতে পারে না।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ধর্ম মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত নির্দেশনা সহ শুক্রবার একটি পরিপত্র জারি করা হবে বলে মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানিয়েছে।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো। আবদুল্লাহ বলেছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধ করতে সীমিত আকারে সারা দেশের মসজিদে তারাবিহ চালু করা হবে। প্রত্যেক ভক্ত বাড়ি থেকে আজু নিয়ে আসবেন। অসুস্থ বা সন্দেহজনক ব্যক্তিরা মসজিদে এসে বাড়িতে নামাজ পড়বে না। তারাবিহতে সর্বাধিক 12 ভক্ত উপস্থিত থাকতে পারেন।

ধর্ম মন্ত্রকের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন একটি বার্তায় বলেছেন যে করোনার সংক্রমণের ঘটনা ঘটলে, ১০ জন উপাসক ও দুই হাফেজসহ মোট ১২ জনকে এশা ও তারাবিহার নামাজ পড়ার সুযোগ পাবেন রমজান মাসে মসজিদসমূহ। এ ছাড়া শুক্র ও শুক্রবারের বিষয়ে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের জারি করা নির্দেশাবলী মসজিদে কার্যকর হবে। এ ছাড়া রমজান মাসে ইফতার মাহফিলের নামে এ জাতীয় কোনও অনুষ্ঠানের আয়োজন করা যাবে না। ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় শুক্রবার এ বিষয়ে বিস্তারিত নির্দেশনা সহ একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করবে।

সূত্রমতে, করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে ধর্ম মন্ত্রনালয় গত ৮ এপ্রিল দেশের মসজিদসমূহে উপাসকদের সংখ্যা সীমাবদ্ধ করেছিল। মসজিদের ইমাম, মুয়েজিন এবং দাসদের সর্বোচ্চ পাঁচ জন এবং 10 জনের সাথে জুমার জামাতে পাঁচবারের জামাতে অংশ নেওয়ার অনুমতি রয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার কওমি মাদরাসার শীর্ষ সংগঠন আল হায়াতুল উলিয়া একটি বিবৃতিতে দাবি করেছিলেন যে ১৪ টি শর্তে মসজিদটিকে স্বাস্থ্যকর জন্য চালু করা হবে। বুধবার প্রতিনিধি দলের সাথে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ মো। আবদুল্লাহ বৈঠক করেছেন। বৈঠক থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এবং প্রশাসনের কয়েকজন শীর্ষ আধিকারিক ফোনে আলেমদের সাথে মতবিনিময় করেন। সেই আলোচনায় আলেমরা মক্কা-মদীনায় মাসজিদুল হারামাইন রীতিতে রমজানে তারাবী সহ অন্যান্য নামাজ পড়ার অনুমতি দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছিলেন আলেমরা।

সূত্র: কালের কণ্ঠ
এমএন / 23 এপ্রিল

Leave a Reply