রোহিঙ্গাদের খাদ্যের অধিকার নিশ্চিতের আহ্বান ২৫ বিশিষ্ট নাগরিকের

রোহিঙ্গাদের খাদ্যের অধিকার নিশ্চিতের আহ্বান ২৫ বিশিষ্ট নাগরিকের

AKাকা, ২ April এপ্রিল – বাংলাদেশের পঁচিশজন বিশিষ্ট নাগরিক করোনার মহামারী চলাকালীন বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে প্রায় ৪০০ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে উদ্ধারের জন্য বাংলাদেশের জনগণ, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অংশীদার এবং রাষ্ট্র কর্তৃপক্ষের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ প্রকাশ করেছেন। একই সঙ্গে তারা খাদ্য, স্বাস্থ্য, তথ্যের অবাধ প্রবাহ, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা এবং চলাফেরার ক্ষেত্রে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মানবাধিকার রক্ষার জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। সোমবার (২৩ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানা গেছে।

বিবৃতি অনুসারে, বাংলাদেশে বর্গকিলোমিটারে পাঁচ হাজার 7০০ জন লোক বাস করে। তবে রোহিঙ্গা শিবিরে প্রতি বর্গকিলোমিটারে প্রায় তিন হাজার লোক রয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বাধ্যবাধকতা এখানে মেনে চলতে পারে না। ফলস্বরূপ, কোনও কোভিড -১ সংক্রমণ রোহিঙ্গা শিবিরে সংক্রামিত হলে মারাত্মক হারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। আমরা জানি যে সরকার এবং জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলির সর্বোত্তম প্রচেষ্টা সত্ত্বেও শিবিরগুলিতে এখনও পর্যাপ্ত চিকিৎসা সেবা, বিশুদ্ধ জল এবং স্যানিটেশন সুবিধা নেই। রোহিঙ্গা শিবিরে করোনাভাইরাসের অনিয়ন্ত্রিত প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে স্থানীয় জনগণের মধ্যে এটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। তাই তারা রোহিঙ্গাদের খাবার সহ চিকিত্সা সেবা নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে 20 বিশিষ্ট নাগরিক স্বাক্ষর করেছেন – ডঃ মেঘনা গুহামত; গবেষক, ডাঃ রিদওয়ানুল হক; শিক্ষক- Dhakaাকা বিশ্ববিদ্যালয়, অধ্যাপক ড। পারভীন হাসান, উপাচার্য; কেন্দ্রীয় মহিলা বিশ্ববিদ্যালয়, ডঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ট্রাস্টি; জনস্বাস্থ্য কেন্দ্র, ডঃ মনজুর হাসান, নির্বাহী পরিচালক; সেন্টার ফর পিস অ্যান্ড জাস্টিস, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়, ফারাহ কবির, কান্ট্রি ডিরেক্টর; অ্যাকশন এইড বাংলাদেশ, শাহীন আনাম, নির্বাহী পরিচালক; ফাউন্ডেশন ফর পিপল, রেজাউল করিম চৌধুরী, নির্বাহী পরিচালক; উপকূল ট্রাস্ট, মাহিন সুলতান; মহিলা অধিকার আন্দোলনের কর্মী, অ্যাডভোকেট কামরুন নাহার; মহিলা অধিকার আন্দোলনের কর্মী, প্রধান নির্বাহী জাকির হোসেন; নাগরিক উদ্যোগ, মোহাম্মদ নূর খান; মানবাধিকার কর্মী, কাজী ওমর ফয়সাল, শিক্ষক; আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়, রেহনুমা আহমেদ; লেখক, সাইমা খাতুন, শিক্ষক; জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, গবেষক ডঃ মুবাশ হাসান; নরওয়ের ওসলো বিশ্ববিদ্যালয় ড। স্বপন আদনান, শিক্ষক ও গবেষক, মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল নোমান; আইনজীবী, রুহি নাজ, আইনজীবী, হানা শামস আহমেদ; লেখক / গবেষক এবং মানবাধিকারকর্মী, পারসা সঞ্জনা সাজিদ; লেখক / গবেষক, মোহাম্মদ সিমুম রেজা তালুকদার; আইনজীবী ও শিক্ষক, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়, ফরিদা আক্তার; মানবাধিকার কর্মী, রেজাউর রহমান লেনিন; গবেষক ও মানবাধিকারকর্মী শিরিন হক; মানবাধিকারকর্মী।

সূত্র: জাগো নিউজ
এনএইচ, 23 এপ্রিল

Leave a Reply