সুনশান নীরব ঢাবিতে সরব শিশুরা

Uাবি-বয়েস -২

করোনভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকির কারণে মার্চের শেষ সপ্তাহ থেকে ক্যাম্পাসের বাইরের এবং যানবাহন চলাচল পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। টিএসসির রোকেয়া হলের সামনের নীলক্ষেতের প্রবেশ পথ এবং ফুলার রোডের উদয়ন স্কুলের সামনের রাস্তাটি ব্যারিকেড করা হয়েছে।

ক্যাম্পাসে ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের হোস্টেল শিক্ষার্থীদের ফাঁকা রয়েছে। ক্যাম্পাসে অবস্থানরত শিক্ষক ও কর্মচারী ব্যতীত কেউ প্রবেশ করে না। তাই বেশিরভাগ সময় ক্যাম্পাসটি খালি থাকে।

দিনের বেলা খালি থাকলেও ক্যাম্পাসটি বিকেলে বাচ্চাদের ডাক দিয়ে গুঞ্জনে উঠল। কেউ কেউ খালি রাস্তায় দল বেঁধে ফুটবল খেলতে দেখা যায়, কাউকে সাতছড়া বা ছায়াছুমি খেলছেন, সাইকেল চালাচ্ছেন এবং চারপাশে দৌড়ঝাঁপ করতে দেখছেন। তাদের কারণেই বিকেলে নীরব ক্যাম্পাসটি শোরগোল পড়ে যায়। বাবা-মা বিকেলে বেড়াতে বের হন।

একদল বাচ্চাকে ছুটির দিনে এফ রহমান হলের সামনের রাস্তায় ফুটবল খেলতে দেখা গেছে। খুব বেশি দূরে, আরও কয়েকজন বাচ্চাকে সাতছারা এবং টেনিস বল নিয়ে খেলতে দেখা গেছে। একদল শিশু ফুলার রোডে প্রতিযোগিতা এবং সাইকেল চালাচ্ছে। ক্যাম্পাসের বেশিরভাগ মহিলা, পুরুষ এবং শিশুরা মুখোশ পরা ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

Uাবি-বয়েস -২

তবে ক্যাম্পাসের টিএসসিতে দিন দিন ভিড় বাড়ছে। আজ, ছুটির শেষ বিকেলে, আগের মতোই, টিএসসির আশেপাশে অগণিত লোককে দলে দলে দলে দলে .ুকতে দেখা গেছে। হটপট, মুড়তি বা আইসক্রিম খাওয়ার বন্ধুদের সাথে ক্যাম্পাসে ঘুরে বেড়ানোও দেখার মতো একটি দৃশ্য। তাদের অনেককেই হাইজিনের নিয়ম অনুসরণ করতে দেখা যায়নি।

এমইউ / এমআরএম / পিআর