সেপ্টেম্বরে প্রত্যেকটা ওয়ার্ডে পঞ্চায়েত কমিটি করবো : শামীম ওসমান

শামীম-উসমান

নারায়ণগঞ্জ -৪ সাংসদ শামীম ওসমান বলেছেন, “Godশ্বর আমাকে সুস্থ রাখলে আমরা সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে প্রতিটি ওয়ার্ডে পঞ্চায়েত কমিটির সভা করব।” অঞ্চলটি সেই পঞ্চায়েতের মধ্য দিয়ে চলবে। কোনও হুমকি-ধাক্কা মারার অনুমতি দেওয়া হবে না।

শুক্রবার (২ 26 আগস্ট) বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ড আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেছিলেন যে ডিএনডির ২.২ মিলিয়ন মানুষ জলাবদ্ধতা থেকে মুক্ত করার জন্য ডিএনডির এই প্রকল্পটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমি জোর করে তৎকালীন পরিকল্পনার (বর্তমানে অর্থমন্ত্রী) মন্ত্রী মোস্তফা কামালকে মধ্যাহ্নভোজের টেবিলে থেকে ডিএনডি জনগণের দুর্দশার বিষয়টি তুলে ধরলাম।

তারপরে ডিএনডি প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়। এটি পুরোপুরি বাস্তবায়িত হলে অঞ্চলটি হাতিরঝিলের মতো সুন্দর হবে। এ ছাড়াও নারায়ণগঞ্জের লিংক রোডকে ৮ লেনে উন্নীত করার কাজ শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে সাড়ে চার কোটি টাকার বাজেট পাস হয়েছে। শিগগিরই কাজ শুরু হবে। চশরা থেকে আদমজী রেলপথ পর্যন্ত 40 ফুট প্রশস্ত রাস্তার কাজও খুব শীঘ্রই শুরু হবে। এখানেও প্রায় ৪০০০ টাকার বাজেট রয়েছে। এর পরে আমরা নারায়ণগঞ্জে একটি মেডিকেল কলেজ এবং একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণের কাজ শুরু করব। আমি নারায়ণগঞ্জকে একটি পূর্ণাঙ্গ আধুনিক শহরে রূপান্তরিত করতে চাই। আপনি আমার জন্য প্রার্থনা করবেন।

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পানি সম্পদ মন্ত্রকের যুগ্ম প্রধান মন্টু কুমার বিশ্বাস।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ডিএনডি প্রকল্প পরিচালক লেঃ কর্নেল মোঃ মাশফিকুল আলম ভূঁইয়া, প্রকল্প সমন্বয়কারী মেজর সৈয়দ মোস্তাকিম হায়দার, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মোহাম্মদ আলী, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মো। সম্পাদক ইয়াসিন মিয়া, নাসিক দশম ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইফতেখ, হুমায়ুন কবির প্রমুখ।

এমএএস / জেআইএম