পরিত্যক্ত পুকুর ও মাঠে প্রাণ ফেরালেন ইউএনও

jagonews24

গাজীপুর কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো। শিবলি সাদিকের উদ্যোগে, কালীগঞ্জ রাজা রাজেন্দ্র নারায়ণ (আরআরএন) পাইলট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত মাঠ ও পুকুরে প্রাণ ফিরে পেয়েছেন। সেই সাথে, প্রাচীনতম সরকারী স্কুলটি backতিহ্যটি ফিরে পেয়েছে।

এমনকি দু’দিন আগেও মাঠের কোণে ময়লার স্তূপ ছিল। সাধারণ মানুষকে মাঠ ও পুকুর ধরে হাঁটার জন্য রুমাল পরতে হয়েছিল। বেশিরভাগ মাঠ ও পুকুর পরিত্যক্ত ছিল। করোনায়, প্রচলিত স্কুলের ময়লা পুকুরের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল। ইউএনও জানিয়েছে, বিষয়টি নজরে আসে। শিবলি সাদিক। তিনি পুকুর সহ পরিত্যক্ত ক্ষেত পরিষ্কার করার দায়িত্ব নিয়েছিলেন।

ঘটনাস্থলে দেখা গেল, পৌরসভার আবর্জনা মাঠের কোণায় ফেলে দেওয়া হয়েছে। সেখানে এখন ডাস্টবিন সরবরাহের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ময়লা ফলের মাঠের চারদিকে গাছ লাগানো হয়েছে। এবং এটি একটি খাঁচা দেওয়া হয়েছে। তদুপরি, ক্ষেত্রগুলি যেখানে নোংরা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে সেখানে সীমানা প্রাচীর সরবরাহ করা হয়েছে। মাঠের আগাছা পরিষ্কারভাবে স্প্রে করা হয়েছে।

অন্যদিকে, পুকুরের সমস্ত ময়লা পরিষ্কার করে পুকুরের পানিতে চুন ছিটিয়ে দেওয়া হয়েছে। পুকুর রক্ষার জন্য পুকুরের পশ্চিম পাশে দেয়াল তৈরির প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা পর্যবেক্ষণের জন্য মাঠ ও পুকুরের আশেপাশে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। শিশু এবং কিশোররা এখন পরিত্যক্ত মাঠে খেলছে। এবং যে পুকুরে লোকেরা পাশের পাশ দিয়ে হাঁটলে তাদের নাকে রুমাল দিতে হয়েছিল, এখন স্নান এবং আজু করা হচ্ছে।

jagonews24

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে পুকুর ও মাঠ পরিত্যক্ত ছিল। তবে ইউএনও শিবলী সাদিকের উদ্যোগে traditionalতিহ্যবাহী বিদ্যালয়ের মাঠ ও পুকুরটি প্রাণ ফিরে পেয়েছে। উপজেলা ইউএনওর এ জাতীয় উদ্যোগ নিয়ে স্থানীয়রা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

ইউএনও শিবলী সাদিক বলেন, আসলে উপজেলা প্রশাসনের সর্বোচ্চ ব্যক্তি হিসাবে কাজ করার অনেক সুযোগ রয়েছে। তবে এটি স্থানীয়দের সহযোগিতায় সহজেই করা যায়। স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থী না aম আহমেদ এবং আমেরিকা থেকে প্রবাসী সহ অনেক স্থানীয় লোক আমার কাজে সহযোগিতা করেছে। স্থানীয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মাঠ পরিষ্কার করার জন্য সরাসরি কাজ করেছেন। এর জন্য আমি সবার কাছে কৃতজ্ঞ।

আবদুর রহমান আরমান / আরএআর / এমকেএইচ