অচল সংসারের চাকা, বাঁচার আকুতি প্রতিবন্ধী অটোরিকশা চালকদের

jagonews24

‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দয়া করে আমাদের ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালানোর অনুমতি দিন। আমরা যা চাই সব করতে পারি না। আমি অটোরিকশা চালাই এবং পরিবারের সাথে থাকি। আমরা ভিক্ষা বা কারুর করুণায় বেঁচে থাকতে চাই না। আমি কাজ করতে এবং বাঁচতে চাই ‘

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরের বাসিন্দা কবির হোসেন নামে শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তির কণ্ঠে এই আকাঙ্ক্ষা শোনা গিয়েছিল। রবিবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তায় মানববন্ধন কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

কবির জানান, তিনি তার পরিবারের সাথে ব্যাটারি চালিত রিকশায় কাটাচ্ছেন। তবে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলির সাম্প্রতিক কার্যক্রমের কারণে তিনি আর অবৈধভাবে ঘোষিত ব্যাটারি চালিত রিকশা চালাতে পারছেন না। সে কারণেই তাঁর পৃথিবীর চাকা অকেজো হয়ে উঠছে।

ব্যাটারিচালিত রিকশাগুলিতে সরকারের ক্র্যাকডাউনের কারণে ভোগা শারীরিক প্রতিবন্ধী কয়েকশো মানুষ মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছিল। তাদের কোন বাহু নেই, পা নেই। শারীরিক প্রতিবন্ধী হওয়া সত্ত্বেও তাদের কেউ কেউ হুইলচেয়ারে, কেউ ক্রাচে এবং কেউ রিকশা বা ভ্যানে করে এই প্রোগ্রামে যোগ দেয়।

jagonews24

তারা ‘আমি ভিক্ষা চাই না, আমি পদক্ষেপ চাই’, ‘নবীকে ভিক্ষা শেখাবেন না’, ‘আমি এইভাবে বাঁচতে চাই, ভিক্ষুকমুক্ত সমাজ চাই’, ‘অটোরিকশা’ এই শ্লোগান নিয়ে ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড বহন করে। প্রতিবন্ধীদের জন্য চলছে, এটি চলবে ‘।

তাদের কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে, রাজধানীর বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পাঁচ শতাধিক শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় তাদের পরিবার পরিচালনার অনুমতি চাইছেন। এ জন্য তারা সরকারের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষণ করে।

jagonews24

“আমরা অন্য দশ জনের মতো সাধারণ জিনিসগুলি করতে পারি না,” তারা এই অনুষ্ঠানে বলেছিলেন। এক্ষেত্রে আমরা যদি ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালানোর অনুমতি পাই, স্ত্রী, বাচ্চাসহ সকলেই দু’বার খাওয়ার পরে বাঁচতে পারবে।

তারা বারবার বলেছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কথায়, আমাদের সমস্ত পরিবার সক্রিয় থাকতে পারে। আমরা আপনাকে আমাদের দিকটিতে বিশেষ মনোযোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।

এমইউ / এইচএ / এমকেএইচ

করোনার ভাইরাস আমাদের জীবন বদলে দিয়েছে। আনন্দ, বেদনা, সংকট, উদ্বেগ নিয়ে সময় কাটায়। আপনি কিভাবে আপনার সময় কাটাচ্ছেন? জাগো নিউজে লিখতে পারেন। আজই এটি প্রেরণ করুন – [email protected]