‘আমারে মাইরেন না, আমি আর নিউজ করব না’

সিটিজি

নিখোঁজ হওয়ার চার দিন পরে সাংবাদিক গোলাম সরোয়ারকে পাওয়া গেছে। রবিবার (১ নভেম্বর) রাত সোয়া আটটায় চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের বড় কুমিরা এলাকার রাস্তার পাশে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় পাওয়া যায়।

স্থানীয়রা জানান, গোলাম সরোয়ারকে রাস্তার পাশে অজ্ঞান অবস্থায় পেয়ে স্থানীয়রা তাকে কুমিরের দোকানে নিয়ে যায়।

সীতাকুণ্ডের পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন বণিক বলেছেন, ‘তাকে কুমিরার একটি হ্রদের কাছে অরক্ষিত অবস্থায় পাওয়া গেছে। স্থানীয় চেয়ারম্যান বিষয়টি থানায় জানিয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে ঘটনাস্থল থেকে নিয়ে আসে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, উদ্ধারের সময় গোলাম সরোয়ার একটি সেন্ডো গাউন পরেছিলেন এবং কেবল অন্তর্বাস ছিল। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে একটি সাজসজ্জার কাছে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে দোকানের মেঝেতে অজ্ঞান করে রাখা হয়। বহু লোক সেখানে যোগ দিয়েছিল। হাজির অন্যান্য মিডিয়া কর্মীদের সাথে পুলিশ হয়ে ওঠেন। এক পর্যায়ে স্থানীয়রা গোলাম সরোয়ারকে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়ার চেষ্টা করছিল। এসময় সরোয়ার সবাইকে জড়িয়ে ধরার চেষ্টা করে স্রেফ বলে চলে গেলেন, ভাই আমার কাছে মাইরেন নেই। আমি আর সংবাদ করব না। ‘
সিটিজি

এ সময় লোকেরা তাকে আশ্বস্ত করেছিল যে তারা তাকে বাঁচাতে সহায়তা করছে।

পরিদর্শক সুমন বণিক জানান, সরোয়ার বর্তমানে অসুস্থ। তার সাথে কথা বলা সম্ভব নয়। হুঁশ ফিরে আসার পরে, তিনি কথা বলে বিশদ জানতে পারবেন।

Um নং কুমির ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আলাউদ্দিন জানান, উদ্ধারকৃত ব্যক্তিকে অ্যাম্বুলেন্স থেকে খালে ফেলে দেওয়া দেখেন এবং কয়েকজন স্থানীয় তাকে উদ্ধার করে রাস্তার পাশে নুরুল আলমের সাজসজ্জার উপরে রেখেছিলেন। তখন সে কিছুটা কথা বলতে পারত।

সাপ্তাহিক আজমির সূর্যোদয় চট্টগ্রামের স্টাফ রিপোর্টার গোলাম সরোয়ার গত বৃহস্পতিবার সকালে শহরের ব্যাটারি অ্যালিতে তার বাসা থেকে নিখোঁজ হন।
সিটিজি

সাপ্তাহিক চট্টগ্রামের ব্যুরো প্রধান জোবায়ের সিদ্দিকী কোনও অনুসন্ধান ছাড়াই সেদিন কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন।

চট্টগ্রাম ইউনিয়ন জার্নাল সরোয়ারকে উদ্ধারের জন্য একটি সমাবেশ করে পুলিশ কমিশনার অফিস ঘেরাও করে বিভিন্ন বিক্ষোভ মিছিল করে।

আবু আজাদ / জেএইচ

করোনার ভাইরাস আমাদের জীবন বদলে দিয়েছে। আনন্দ, বেদনা, সংকট, উদ্বেগ নিয়ে সময় কাটায়। আপনি কিভাবে আপনার সময় কাটাচ্ছেন? জাগো নিউজে লিখতে পারেন। আজ পাঠান – [email protected]