এমএলএমের নামে ৫০ কোটি হাতিয়েছে এ’ওয়ান লিমিটেড

ছবি

রাজধানীর মতিঝিলে একটি অনুসন্ধান অভিযানে র‌্যাব পুরোপুরি অননুমোদিত ও জাল মাল্টি-লেভেল মার্কেটিং (এমএলএম) ব্যবসায়ের সন্ধান করেছে এ 1 বাজার লিমিটেড। এসময় সংগঠনের সাত সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে মতিঝিলে আরকে মিশন নং -১ এর ইত্তেফাক ভবনের ৫ তলায় অভিযান শুরু হয়। অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো। নুরুল ইসলাম (৪২), পরিচালক (অর্থ) মো। ফেরদৌস খান (৪৮), পরিচালক (প্রশাসন) মো। রেজাউল করিম মিন্টু (৫)), পরিচালক (মানব সম্পদ) মো। আবুল কালাম আজাদ (৪০), পরিচালক আসাদুল্লাহ দেওয়ান (৪৮), পরিচালক। আবদুস ছাত্তার (৩৮) ও মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (৫০)।

র‌্যাব জানিয়েছে, অভিযানের সময় র‌্যাব ভবনের একটি অফিস সহ এ-ওয়ান হেলথ কেয়ার এবং এ-ওয়ান বাজার লিমিটেড নামে একটি অননুমোদিত ও বোগাস মাল্টি-লেভেল মার্কেটিং (এমএলএম) সংস্থার পরিচালক নিয়োগের একটি ছবি দেখেছিল। এ ছাড়া জাল সংস্থার নামে তারা জেলা ও উপজেলায় ডিলার ও বিক্রয়কর্মী নিয়োগের নামে প্রায় ৪০,০০০ গ্রাহকের কাছ থেকে ৫০ কোটি টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু জানান, গ্রেপ্তারকরা দীর্ঘদিন ধরে এ 1 হেলথ কেয়ার এবং এ 1 বাজার লিমিটেড, ডেসটিনি নামে একটি সংস্থার মতো গ্রাহকদের নিয়োগ দিয়ে বহু-স্তরের বিপণনে (এমএলএম) ব্যবসায় জড়িত ছিল। তবে এ জাতীয় ব্যবসায়ের জন্য তাদের সরকারের কোনও অনুমোদন নেই। এমনকি তারা যে নামটি খোলেন তার কোনও অস্তিত্বই নেই, এটি সম্পূর্ণ জাল সংগঠন। সংস্থাটির পরিচালক নিয়োগ এবং বিএসটিআইয়ের অনুমোদন ছাড়াই ক্লোভ চা নামে নিম্নমানের পণ্য বিপণনের নামে তারা জেলা ও উপজেলায় ডিলার ও বিক্রয়কর্মীদের নিয়োগের নামে প্রায় ৪০,০০০ গ্রাহকের কাছ থেকে অর্ধ কোটি টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। এভাবে তারা সাধারণ মানুষকে প্রতারণা করছে।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে র‌্যাব নিয়মিত মামলা করবে।

এআর / এসএইচএস / জেআইএম