কক্সবাজারের অভিজাত ৪ খাবার প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

jagonews24

জেলা প্রশাসন কক্সবাজারের পর্যটন অঞ্চল কলাতালীর চারটি অভিজাত খাদ্য প্রতিষ্ঠানের উপর ১২০,০০০ টাকা জরিমানা করেছে।

বাইরে থেকে অভিজাত দেখানো সত্ত্বেও এই হোটেলগুলির অভ্যন্তরের পরিবেশটি নোংরা ছিল বলে অভিযোগ ছিল। বুধবার (১৮ নভেম্বর) ভোক্তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে এই প্রচারণা শুরু করা হয়েছিল। অতিরিক্ত চার্জিংয়ের অভিযোগও সেই সময় সত্য বলে প্রমাণিত হয়েছিল।

ভ্রাম্যমাণ আদালত ‘অভিজাত’ ট্যাগযুক্ত খাদ্য প্রতিষ্ঠান, সৈকতের তরঙ্গ, রূপশীবাংলা, নগরীর বিরম হোটেল এবং আডাবাড়ির রান্নাঘর, খাবার পরিবেশন ও সঞ্চয় ইত্যাদি ইত্যাদি দেখে হতবাক হয়ে গেল Food প্রতিষ্ঠানগুলি একই ফ্রিজে বিক্রির জন্য রাখা হয়, নোংরা পরিবেশে খাবার পরিবেশন করা সহ বিভিন্ন অভিযোগ এবং অসঙ্গতি পাওয়া যায়।

নগরীর সুগন্ধা পয়েন্টের তারাঙ্গা রেস্তোঁরায় রান্না করা খাবার এবং কাঁচা মাছ এবং মাংস একই ফ্রিজে সংরক্ষণ করতে হবে, এমআরপির চেয়ে পানির বোতল বেশি নেওয়া হয়েছে এবং অপরিষ্কার রান্নাঘরের জন্য ৫০,০০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

ভ্যাট সংক্রান্ত অনিয়মের প্রমাণ পাওয়ার জন্য প্রশাসন হোটেল-মোটেল জোনের রূপসী বাংলা রেস্তোঁরাটিতে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে।

বাজারঘাটা এলাকার আদাবাড়ি রেস্তোঁরাাকে লালদীঘিপুরের বিরম হোটেলে খোলা খাবার পরিবেশন করার জন্য ৩০ হাজার টাকা জরিমানা, অনস্বাস্থ্যকর রান্নাঘর, নগদ মেমোতে স্বাক্ষরবিহীন পরিবেশ এবং একই ফ্রিজে কাঁচা খাবার রান্না ও সংরক্ষণের জন্য ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

jagonews24

জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লাভলী ইয়াসমিন সীমা এর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে জরিমানা করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষের নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শনের দায়িত্বে থাকা জেলা স্যানিটারি পরিদর্শক তরুন বড়ুয়া বলেন, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯-এর বিভিন্ন ধারা অনুসারে জরিমানা করা হয়েছে।

আনসার ব্যাটালিয়নের কর্মকর্তা ও সদস্যরা এই অভিযানে সহযোগিতা করেছিলেন।

সাeedদ আলমগীর / এসআর / এমকেএইচ

করোনার ভাইরাস আমাদের জীবন বদলে দিয়েছে। সময় আনন্দ এবং দুঃখে, সঙ্কটে, উদ্বেগে কাটায়। আপনি কিভাবে আপনার সময় কাটাচ্ছেন? জাগো নিউজে লিখতে পারেন। আজ পাঠান – [email protected]