কাতার আমিরের কাছে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের পরিচয় পেশ

jagonews24

কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত ড। ২ Jas সেপ্টেম্বর রাজধানীর দোহার আমিরী দেওয়ানে জসিম উদ্দিন আনুষ্ঠানিকভাবে তার আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির কাছে তার পরিচয়পত্র হস্তান্তর করেন।

এ সময় মিলিটারি ব্যান্ডটি বাংলাদেশ এবং কাতারের জাতীয় সংগীত বাজায়। এরপরে সশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস রাষ্ট্রদূতকে গার্ড অফ অনার উপস্থাপন করেন। পরিচয়পত্র হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিকতার পরে রাষ্ট্রদূত কাতারের আমিরের সাথে সাক্ষাত করেন।

বৈঠকে কাতারের আমির বাংলাদেশের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূতকে আন্তরিকভাবে স্বাগত জানান। রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে তিনি রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশের জনগণের কাছে শুভেচ্ছা জানান। আমির শেখ তামিম কাতারে প্রবাসী বাংলাদেশীদের অত্যন্ত প্রশংসা করেছেন এবং কাতারের উন্নয়নে তাদের অবদানের জন্য তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

তিনি বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে বিদ্যমান ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ককে আরও বাড়ানোর লক্ষ্যে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়াতে জোর দিয়েছিলেন।

কাতারের আমির বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী। জসিম উদ্দিন শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। রাষ্ট্রদূত কাতারের আমিরকে কাতারে প্রবাসী বাংলাদেশীদের যত্ন নিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য বিশেষত করোনভাইরাস থেকে রক্ষার জন্য ধন্যবাদ জানান।

রাষ্ট্রদূত বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশিরা একদিকে কাতারের উন্নয়নে অবদান রেখে চলেছে এবং অন্যদিকে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। রাষ্ট্রদূত কাতারে চলমান উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে প্রবাসী বাংলাদেশী শ্রমিকদের নিবেদিত অবদানের কথাও উল্লেখ করেছেন।

তিনি আধুনিক কাতারের গঠনে আমিরের দৃ leadership় নেতৃত্বের প্রশংসা করেছিলেন। রাষ্ট্রদূত ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজনকে কেন্দ্র করে কাতারের অবকাঠামোগত উন্নয়নের প্রশংসা করেন। জসিম উদ্দিন আশ্বাস দিয়েছিলেন যে ভবিষ্যতে এই ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

তিনি আশা প্রকাশ করেন যে বাংলাদেশ ও কাতারের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগের সম্পর্ক জোরদার করে উভয় দেশ উপকৃত হবে।

দু’দেশের মধ্যে উচ্চ-স্তরের মতবিনিময়টির গুরুত্বের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বলেছিলেন যে কাতারের আমির শেখ তামিমের বাংলাদেশ সফর দুই দেশের মধ্যকার চমৎকার ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবে। জবাবে কাতারের আমির একটি সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফরে আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন।

কাতারের আমির নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূতের সাফল্য কামনা করেছেন এবং সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। বৈঠকে কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রকের রাজ্য প্রধান আমিরী দেওয়ানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা, পররাষ্ট্র মন্ত্রকের এশিয়া বিভাগের পরিচালক, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তারা এবং বাংলাদেশের প্রথম সচিব উপস্থিত ছিলেন দূতাবাস কাতারে। মাহবুব রহমান (রাজনৈতিক) উপস্থিত ছিলেন।

এমআরএম

প্রবাসী জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প বলা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি,
আপনি আপনার জন্মভূমির স্মৃতিচিহ্নগুলি, রাজনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবি দিয়ে লেখা
প্রেরণের ঠিকানা –
[email protected]