ঝুলন্ত তারের সমস্যা সমাধানে নেয়া হচ্ছে সমন্বিত উদ্যোগ

jagonews24

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক বিটিআরসির উদ্যোগে hangingাকা মহানগরীর ঝুলন্ত তার, অপসারণ, বিনিয়োগকারী ও গ্রাহকদের উদ্বেগের বিষয়টি বিবেচনায় রেখে একটি সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার রাজধানীর কমিশনের কার্যালয়ে বিটিআরসি চেয়ারম্যান মো। জহুরুল হকের সভাপতিত্বে বৈঠকে ইন্টারনেট সেবা সরবরাহকারী আইএসপিএবি, এনটিটিএন অপারেটর এবং Dhakaাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তারা প্রতিনিধিরা রাজধানীতে টেকসই ও নিরবচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সেবার সমাধানের লক্ষ্যে প্রচেষ্টার আহ্বান জানান।

কমিশনের প্রকৌশলী ও অপারেশনস ডিরেক্টর জেনারেল, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল। এহসানুল কবির পরিচালিত কর্মসূচিতে ইস্পাবের সভাপতি এম এ হাকিম সমস্যা সমাধানে কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন। সিটি কর্পোরেশন শহরের আবর্জনা অপসারণের উদ্যোগ নিয়েছে বলে উপস্থিত প্রত্যেকে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

বেসরকারী এনটিটিএন অপারেটর সামিট এবং ফাইবার অফ হোম এ উপস্থাপনায় রাজধানীতে অপটিক্যাল ফাইবার পরিচালনার চিত্র আঁকা। ফাইবার এ হোমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল। রফিকুর রহমান তার সংস্থার বিনিয়োগ পরিস্থিতির বর্তমান প্রসঙ্গে এই ভাষণ দিয়েছিলেন।

Dhakaাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের পক্ষে প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মো। আমিরুল ইসলাম বলেন, তাঁর সংস্থা শহরে কোনও ঝুলন্ত তারের না রাখার পক্ষে। তবে, ঝুলন্ত না রেখে কীভাবে ভূগর্ভস্থ তারযুক্ত পরিষেবা সরবরাহ করবেন সে সম্পর্কে তিনি একটি মডেল সরবরাহ করেছিলেন। দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন আরও বলেছে যে তারা ইতিমধ্যে ধানমন্ডির রাইফেল স্কয়ার থেকে ঝুলন্ত এটির পরিচালনার একটি পাইলট প্রকল্প হাতে নিয়েছে ২ number নম্বরে। উপস্থিত সবাই দু’টি সিটি কর্পোরেশনের মডেল ও ক্রিয়াকলাপকে প্রশংসা করেছে এবং এতে সকল প্রকার সহযোগিতার বিষয়ে একমত হয়েছে এই ব্যাপার.

বিটিআরসির পক্ষে আমরা সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। তবে আমাদের মনে রাখতে হবে যে আমাদের দেশের আইন, বিধি এবং প্রাসঙ্গিক নির্দেশিকাগুলির বাইরে যাওয়া উচিত নয়। ইন্টারনেটের দাম সম্পর্কে, বিটিআরসি শুল্ক নির্ধারণের ক্ষেত্রে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সাথে কাজ করছে এবং একটি ভাল ফলাফল প্রত্যাশিত।

তার বক্তব্যে কমিশনের চেয়ারম্যান বলেছিলেন, আমরা নিরবচ্ছিন্ন ইন্টারনেট চাই, আমরা তা পাব। আশা করি সিটি কর্পোরেশন আমাদের কিছুটা সময় দেবে। আমরা নিশ্চিত করছি যে কোনও উদ্যোগ না নিলে দাম গ্রাহককে প্রভাবিত করবে না। কমিশনের লাইসেন্স নিয়ে যদি কোনও সমস্যা হয় তবে অবশ্যই কমিশন এটি খতিয়ে দেখে সমাধানের চেষ্টা করবে, আমি আপনাকে আশ্বাস দিচ্ছি। বিটিআরসি, এনটিটিএন, আইএসপি অপারেটর এবং সিটি কর্পোরেশনের যৌথ প্রচেষ্টার জন্য আমরা শীঘ্রই এই সমস্যাটি সমাধান করতে সক্ষম হব।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র, স্পেকট্রাম বিভাগের মহাপরিচালক, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো। শহিদুল আলম, সিস্টেমস এন্ড সার্ভিসেসের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো। মোস্তফা কামাল, বিটিসিএলের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো। রফিকুল ইসলাম ও রাম কৃষ্ণ রায়, সহকারী প্রকৌশলী, দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন; ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী মর্তুজা খান, চিফ কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার, সামিট কমিউনিকেশনস; এস এম আনোয়ার পারভেজ, প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতি, কোব; এমদাদুল হক এবং বিটিআরসির অন্যান্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এএ / জেআইএম

করোনার ভাইরাস আমাদের জীবন বদলে দিয়েছে। সময় আনন্দ এবং দুঃখে, সঙ্কটে, উদ্বেগে কাটায়। আপনি কিভাবে আপনার সময় কাটাচ্ছেন? জাগো নিউজে লিখতে পারেন। আজ পাঠান – [email protected]