নেত্রকোনায় ট্রলারডুবি : নিহত ১০ জনের ৯ জনই সুনামগঞ্জের বাসিন্দা

jagonews24

নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার গুমাই নদীতে ট্রলার ডুবে মারা যাওয়া ১০ জনের মধ্যে নয় জন সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার বাসিন্দা। আর একজন মারা গেছেন নেত্রকোনা সদরে। বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) রাত ১১ টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ধর্মপাশা উপজেলার ইনাতনগর গ্রামের ওহাব আলীর স্ত্রী লুৎফুন্নাহার, তার আড়াই বছরের ছেলে ইয়াসিন, মাজিদা আক্তার (৫০) একই গ্রামের সাহেব আলীর স্ত্রী মোজাহিদ, ৪, জামালপুর গ্রামের জোবায়েরের ছেলে অনিক ()), কামারুড়া গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে লাকী আক্তার (৩০), তার দুই সন্তান টুম্পা আক্তার (৫) ও জাহিদ হোসেন (৩) ও হামিদা খাতুন (৪৫), নেত্রকোনা সদরের মেদানী গ্রামের আবুচনের স্ত্রী।

জানা গেছে, ৩ 36 জন যাত্রী নিয়ে একটি ট্রলার সুনামগঞ্জের ধর্মপাশের মধ্যনগর থেকে নেত্রকোনা সদরের ঠাকুরাকোনায় যাচ্ছিল। কলমাকান্দার রাজনগর এলাকায় পৌঁছে যাত্রীবাহী ট্রলারটি বিপরীত দিক থেকে আগত একটি বালুবাহী ট্রলারের সাথে সংঘর্ষ হয়। ডুবে গেল যাত্রীর ট্রলার। পরে স্থানীয়রা এসে 10 জনের লাশ উদ্ধার করে।

এদিকে, সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন ক্ষতিগ্রস্থদের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা নগদ সহায়তা প্রদানের উদ্যোগ নিয়েছে।

jagonews24

সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল আহাদ বলেন, ট্রলার দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাতে আমি ঘটনাস্থলে পৌঁছেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষতিগ্রস্থ প্রত্যেকের পরিবারকে নগদ 20,000 টাকা প্রদান করছেন। আমি ইতিমধ্যে চারটি পরিবারের কাছে সহায়তার অর্থ হস্তান্তর করেছি। আমি আজকের মধ্যে অন্যান্য পরিবারকে নগদ সহায়তাও দেব।

মোসাইদ রাহাত / আরএআর / এমকেএইচ