নেপালের বিপক্ষে সিরিজ জয় বাংলাদেশের

রক্ষক

দর্শকরা দুই ম্যাচের সিরিজে দুটি জয়ের প্রত্যাশা করেছিল। বাংলাদেশ দলের কোচ ও খেলোয়াড়রাও বলেছিলেন যে তারা জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চায়। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথম ম্যাচে খুঁজে পাওয়া যায়নি বাংলাদেশকে। এটিই জয় নয়, লাল-সবুজ জার্সিধারীরা দ্বিতীয় ম্যাচে ড্র করে সিরিজ জিতেছে।

মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে গোলশূন্য ড্রয়ে বাংলাদেশ ও নেপালের মধ্যকার ফিফার বন্ধুত্বপূর্ণ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি শেষ হয়েছে। গত শুক্রবার প্রথম ম্যাচে অতিথি দলের কাছে ২-০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ।

দ্বিতীয় ম্যাচ জয়ের পরে দুই ম্যাচের সিরিজটি ২-০ ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ। নেপালে পাওয়া দুই ম্যাচের সিরিজের একটি ড্র।

ভারপ্রাপ্ত কোচ স্টুয়ার্ট ওয়াটকিস প্রথম ম্যাচে একাদশে দুটি পরিবর্তন করেছিলেন। এই ম্যাচে গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা সারাক্ষণ খেলেছেন। ডিফেন্ডার রিয়াদুল হাসানের বদলে অভিজ্ঞ ইয়াসিন খানকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। তবে ভক্তরা ম্যাচ শেষে হতাশ গ্যালারী ছেড়েছেন। কারণ, তাদের প্রত্যাশা ছিল জামাল ভূঁইয়া দুটি ম্যাচেই জিতবে।

ম্যাচ শেষে আতশবাজি রেখে সিরিজ জয়ের উদযাপন করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। প্রথম ম্যাচের সমান না হলেও দ্বিতীয় ম্যাচে কয়েক হাজার দর্শক বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে উপস্থিত ছিলেন এবং জীবন-সাদ উদ্দিন তাদের উত্সাহ দিয়েছিলেন।

বাংলাদেশ একাদশ
আশরাফুল ইসলাম রানা (গোলরক্ষক), বিশ্বনাথ ঘোষ, রহমত মিয়া, তপু বর্মন, জামাল ভূঁইয়া (অধিনায়ক), নবীব নেওয়াজ জীবন, ইয়াসিন খান, সুমন রেজা (সুফিল), মোহাম্মদ ইব্রাহিম (সোহেল রানা), মানিক মোল্লা ও সাদ উদ্দিন।

আরআই / আইএইচএস / এমকেএইচ

করোনার ভাইরাস আমাদের জীবন বদলে দিয়েছে। আনন্দ, বেদনা, সংকট, উদ্বেগ নিয়ে সময় কাটায়। আপনি কিভাবে আপনার সময় কাটাচ্ছেন? জাগো নিউজে লিখতে পারেন। আজ পাঠান – [email protected]