বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের ফিরিয়ে আনাই মুজিববর্ষের প্রত্যয়

হাসান

বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হয়। হাসান মাহমুদ।

রবিবার (২ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সচিবালয়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনের চিত্র ও ডিজিটাল প্রদর্শন ও সংবাদপত্রে সপ্তাহব্যাপী প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, “ন্যায়বিচারের সমাজ প্রতিষ্ঠার জন্য অন্যায়ের প্রতিকার করতে হবে।” সে কারণেই বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিচার করা হয়েছে। রায়ও কার্যকর ছিল। এই মুজিব শতবর্ষে বঙ্গবন্ধুর যে সকল পলাতক হত্যাকারী এখনও বিশ্বের সকল প্রান্তে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তাদের আমাদের বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনাই আমাদের দৃiction় প্রত্যয়। ‘

তিনি বলেছিলেন, “একই সাথে যারা সামনে থেকে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড চালিয়েছিল তারা কেবল অপরাধীই নয়, সত্য ও ন্যায়বিচারের স্বার্থে ষড়যন্ত্রকারীদের মুখোশ উন্মোচন করা দরকার।” জিয়াউর রহমান সহ এর সাথে যুক্তদের মুখোশগুলি জনসাধারণের কাছে উন্মোচন করা দরকার। ‘

‘বাঙালির ভবিষ্যতের ইতিহাসের স্বার্থে যারা এই ষড়যন্ত্রে জড়িত তাদের আনমস্ক করার জন্য একটি কমিশন গঠন করা দরকার। তাহলে ইতিহাস সঠিকভাবে লেখা হবে। আমি মনে করি মুজিবের শতবর্ষে কাজটি করা খুব জরুরি। ‘

হাসান

এর আগে তিনি তথ্য বিভাগ ভবনের (ক্লিনিক ভবন) সামনে একটি ডিজিটাল ডিসপ্লে উদ্বোধন করেন। পরে তিনি বঙ্গবন্ধুর জীবন ও সংবাদপত্রে কাজের চিত্র নিয়ে এক সপ্তাহব্যাপী প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন এবং প্রদর্শনীর সাইটটি পরিদর্শন করেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকার। মুরাদ হাসান, তথ্য সচিব কামরুন নাহার, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরএমএম / এমএআর / জেআইএম