ভারতে প্রথমবারের মতো যাত্রা করল সি-প্লেন

jagonews24

ভারতে প্রথমবারের মতো সমুদ্র-বিমান পরিষেবা চালু হয়েছিল। এসি বিমানটি আহমেদাবাদ থেকে কেভদিয়ার সরদার বল্লভভাই প্যাটেলের স্ট্যাচু অফ ইউনিটির দিকে চলবে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিমানটিতে প্রথম যাত্রী ছিলেন। কেভাদিয়া থেকে সমুদ্রের বিমানে তিনি আহমেদাবাদে এসেছিলেন।

স্পাইস জেটের অধীনে স্পাইস শাটল এই পরিষেবাটি সরবরাহ করবে। এই সমুদ্র-বিমান পরিষেবাটির মূল উদ্দেশ্য পর্যটকদের নর্মদা জেলার কেভদিয়ার স্ট্যাচু অফ ইউনিটির কাছে নিয়ে যাওয়া। দাবি করা হয় যে নর্মদা নদীর তীরে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু মূর্তি এবং এর চারপাশের দৃশ্যগুলি দেখার জন্য আকাশ থেকে নেমে যাওয়ার অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ আলাদা হবে। সূত্রমতে, এসি-প্লেন পরিষেবা স্ট্যাচু অফ ইউনিটির উন্নতি করবে এবং গুজরাটের পর্যটকদের আকর্ষণ এক ঝাঁকিতে পড়বে।

স্পাইস শাটল যখন সর্দার সরোবর বাঁধের জলে ধীরে ধীরে সমুদ্র-বিমানটি স্ট্যাচু অফ ইউনিটির উপরে নেমে আসে তখন আকাশ থেকে স্ট্যাচু অফ ইউনিটি এবং এর চারপাশ দেখতে কেমন হবে তার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে।

jagonews24

স্পাইস শাটল দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলিতে বিমান পরিষেবা সরবরাহ করতে এবং সাধারণ জনগণকে সস্তা অ্যাক্সেস দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার চালু করা ফ্লাইট সার্ভিসের আওতায় এই সমুদ্র বিমান পরিষেবা সরবরাহ করবে। ফলস্বরূপ, সি-বিমানের ভাড়াও সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যে। এই সি-বিমানের টিকিট কেবল 1500 টাকা থেকে শুরু হচ্ছে। তবে চাহিদা অনুযায়ী তা বাড়বে। টিকিটের বুকিং শুরু হওয়ার পর থেকেই টিকিটের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। সি-প্লেনের টিকিটগুলি ওয়েবসাইট স্পাইশিটল ডট কম ভিজিট করে বুক করা যায়।

jagonews24

সি-প্লেনটি আহমেদাবাদ থেকে কেভাদিয়ায় 200 কিলোমিটার দূরে যেতে 45 ​​মিনিট সময় নেবে। কেভাদিয়া থেকে আহমেদাবাদ পর্যন্ত প্রতিদিন চারটি বিমান রয়েছে। সি-প্লেনটি আহমেদাবাদের সাবরমতি নদীর উপর দিয়ে উড়বে এবং কেভদিয়ার সরদার সরোবর বাঁধের জলে অবতরণ করবে।

বিমানটি ফ্লাইট প্রকল্পের আওতায় দেশের অন্যান্য অঞ্চলে সমুদ্র-বিমান পরিষেবা চালু করার পরিকল্পনাও করেছে এই কেন্দ্র। দেশে সি-প্লেন পরিচালনার জন্য মোট ১ routes টি রুট চিহ্নিত করা হয়েছে গুজরাট ছাড়াও, আসামের উত্তরাখণ্ড, আন্দামান ও গুয়াহাটিতে এই পরিষেবা চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে।

জেএইচ / জেআইএম

করোনার ভাইরাস আমাদের জীবন বদলে দিয়েছে। সময় আনন্দ এবং দুঃখে, সঙ্কটে, উদ্বেগে কাটায়। আপনি কিভাবে আপনার সময় কাটাচ্ছেন? জাগো নিউজে লিখতে পারেন। আজ পাঠান – [email protected]