মাঝরাতে চাঁদপুর থেকে লাশ এনে গোসল করাল টিম খোরশেদ

দল-খোরশেদ

কারোনায় মারা যাওয়া বিধবাকে কবর দেওয়ার আগে কেউ স্নান করতে রাজি হননি। পরে টিম খোরশেদকে ডাকা হয়েছিল। কলটি পাওয়ার সাথে সাথে দলের সদস্যরা মধ্যরাতে নারায়ণগঞ্জ থেকে চাঁদপুরে ছুটে আসেন। লাশ সেখান থেকে নিয়ে আসা হয়েছিল এবং নারায়ণগঞ্জ সদরের মাসদাই কবরস্থানে স্নান করা হয়েছিল।

মাকসুদুল আলম খোরশেদ জানান, চাঁদপুর জেলার কচুয়া থানার বাসিন্দা শাহিনুর বেগম (৪৫) শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গ্রিন লাইফ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। নিহতের বাড়িতে কেউ লাশ গোসল করতে রাজি না হওয়ায় স্বজনরা Dhakaাকার বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সহায়তা নেওয়ার চেষ্টা করেন। 8 ঘন্টা অপেক্ষা না করার পরে, টিম সকাল 1 টায় একটি অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভারের সহায়তায় খোরশেদের সাথে যোগাযোগ করেন। আমরা তত্ক্ষণাত সম্মতি জানালে আত্মীয়রা দুপুর ২ টায় লাশটি মাসদাইয়ের কেন্দ্রীয় কবরস্থানে নিয়ে আসে।

পরে খোরশেদের মহিলা দলের সমন্বয়কারী রোজিনা আক্তার, দাফন দলের সদস্য খন্দকার না Naমুল আলম, আরাফাত খান, আক্তার শাহ, হাফেজ রিয়াদুর রহমান ও না timeম সময়মতো কবরস্থানে হাজির হন।

দল-খোরশেদ

তিনি আরও জানান, শোকসন্তপ্ত মহিলার জানাজার পর তার স্বজনরা তার দুই সন্তানের সাথে বেলা ১১ টায় চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হন। সেই মধ্যরাতে প্রয়াত শিশু পুত্র মাশরাফীন আহমেদ ইহতিসানের মাতৃহীন দৃষ্টি যেমন আমাদের আঘাত করেছে, তেমনি Dhakaাকার বেসরকারি হাসপাতালে লাশের ব্যবস্থাপনা আমাদেরও আহত করেছে। রোজিনা আপা এবং তার ছেলে সহ টিম খোরশেদের সকল টিম সদস্যকে সকাল 2 টায় রওয়ানা করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

শাহাদাত হোসেন / এফএ / পিআর