মুখর হোসেনী দালান চত্বর

দালান -২

আশুরা উপলক্ষে রবিবার (৩০ আগস্ট) সকালে পুরান Dhakaাকার নাজিমুদ্দিন রোডের হোসেইনি দালান চত্বর ভক্তদের আলোচনায় পরিণত হয়েছে।

করোনাভাইরাস (কোভিড -১৯) মহামারীর কারণে, শিয়া সম্প্রদায়ের সর্বশেষতম মিছিল এবার রাস্তায় নামবে না। এই traditionalতিহ্যবাহী মিছিলটি হোসেনী দালান চত্তরে অনুষ্ঠিত হবে। সকাল থেকেই তাঁর প্রস্তুতি চলছে। ইমামবাড়া কর্তৃপক্ষের সূত্রে জানা গেছে, সকাল দশটার দিকে মিছিলটি হোসেইনি দালান চত্বর প্রদক্ষিণ করবে।

রবিবার (৩০ আগস্ট) সকাল নয়টার দিকে তারা নাজিমউদ্দিন রোড এলাকা ঘুরে দেখেন যে হোসেনি দালান যে রাস্তায় ছিল তার প্রবেশপথে একটি ব্যারিকেড স্থাপন করা হয়েছে। আইন প্রয়োগকারী বাহিনীর সদস্যরা রাস্তায় টহল দিচ্ছেন। হোসেইনি দালাল চত্বরে প্রবেশের জন্য মানুষের দীর্ঘ লাইন রয়েছে। আইন প্রয়োগকারী বাহিনীর সদস্যরা একে অপরকে পরীক্ষা করছিল এবং খিলান দিয়ে প্রবেশ করছিল।

দালান -২

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও হোসেনী দালাল চত্তরের ভিতরে অবস্থান নিয়েছে। ভিতরে গিয়ে দেখা গেল, কালো কাবুলী এবং পাঞ্জাবি পরা যুবকরা ঘুরে বেড়াচ্ছেন। যুবতীরা কালো সালোয়ার কামিজ পরা ছিল। তারা আলমকে নিয়ে মিছিলের অপেক্ষায় ছিল।

শোভাযাত্রায় অংশ নিতে প্রচুর মহিলা এসেছেন। বাচ্চারাও এসেছিল।

দালান -৩

তাজিয়া ইমামবাড়ার ভিতরে সাজানো ছিল। অনেকে শ্রদ্ধার সাথে আলম ও অন্যান্য উপকরণকে স্পর্শ করছিলেন। তবে যে কোনও উপাদান স্পর্শে নিষেধাজ্ঞার সাথে ফেস্টুনগুলি বিভিন্ন জায়গায় দেখা গেছে।

অনেকের মুখে মুখোশ ছিল না। হাইজিনের দোষ আমার নজরে আসেনি। তবে দেখা গেছে, স্বেচ্ছাসেবীদের ভিড় না করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

দালান -৪

হযরত ইমাম হুসেন, মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নাতি, 10 ই মহররম 61 হিজরিতে কারবালার ফোরাত নদীর তীরে ইয়াজিদ বাহিনীর হাতে শহীদ হন।

দালান-7

এই শোক ও স্মরণে স্মরণে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বিশেষ মোনাজাত, দোয়া মাহফিল ও কোরআন তেলাওয়াত। এই বরকতময় দিনে এবং একই সাথে পূর্ববর্তী বা পরের দিন রোজা রাখা অত্যন্ত পুণ্যময় কাজ।

দালান -২

শিয়া সম্প্রদায় আশুরার দিনটি বিশেষভাবে পালন করে। আশুরার দিনে পুরান Dhakaাকার নাজিম উদ্দিন রোডে হোসাইনী দালান থেকে শিয়াদের তাজা মিছিলটি traditionalতিহ্যবাহী। এ ছাড়া শিয়া াকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নতুন করে মিছিল বের করে। তবে, এবার করোনার কারণে তাজা মিছিলটি রাস্তায় বের হচ্ছে না।

আরএমএম / এসআর / পিআর