মেসির ক্লাব ছাড়ার খবরে বার্সা সমর্থকদের প্রতিবাদ

মেসি

এখনও কোনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়নি, তবে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত। বার্সেলোনা দলের সবচেয়ে বড় তারকা লিওনেল মেসি মঙ্গলবার একটি ফ্যাক্স বার্তার মাধ্যমে ক্লাব থেকে চলে যাওয়ার কথা দলটির পরিচালকদের জানিয়েছেন। এই তথ্যটি স্প্যানিশ ক্লাব নিশ্চিত করেছে।

মেসি কোন নতুন ক্লাবটি বার্সেলোনা ছাড়বেন? – এটা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে তাঁকে নেওয়ার লড়াইয়ে তিনটি দল এগিয়ে রয়েছে; ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটি, ইতালিয়ান ক্লাব ইন্টার মিলান এবং ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেন্ট জার্মেইন। মেসি শেষ পর্যন্ত কোন ক্লাবে যাবেন তা কেবল সময়ই জানাবে।

তবে বার্সেলোনা থেকে মেসির বিদায় নেওয়ার খবরটি ক্লাবের ভক্তরা মেনে নিতে পারেননি। মঙ্গলবার মেসির সংবাদ সম্মেলনের পর থেকে তারা ক্লাবের স্টেডিয়াম নও ক্যাম্পের বাইরে বিক্ষোভ করছেন। তাদের হাতে থাকা প্ল্যাকার্ডস এবং মাফলারগুলি “মেসি থাকুন, বারতেমু পদত্যাগ করুন” “পড়েন।

দীর্ঘদিন ধরে, সমর্থকরা নতুন শিবিরের বাইরে প্রতিবাদ করতে পারেননি। কিছুক্ষণ পর পুলিশ এসে তাদের সরিয়ে দেয়। মূলত করোনভাইরাস সতর্কতার কারণে পুলিশ বেশি লোককে এক জায়গায় জড়ো হতে দেয়নি। এর আগেও ক্লাবের ভক্তরা ইতিমধ্যে মেসির প্রতি সমর্থন প্রকাশ করেছেন।

উল্লেখ্য, বার্সেলোনার বর্তমান ক্লাবের সভাপতি হলেন জোসেফ মারিয়া বার্তেমু। মেসির ক্লাব থেকে বিদায় নেওয়ার পেছনের অন্যতম প্রধান কারণ বার্থলেমি এবং তার ক্লাব পরিচালকদের স্বেচ্ছাচারিতা এবং অতিরিক্ত ব্যবসায়ের মনোভাব। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের মতে, মেসি ক্লাব ছাড়ার এত তাড়াহুড়োয়েন, মূলত কারণ বার্থলেমি পদত্যাগ করেননি।

এদিকে বার্সেলোনার প্রাক্তন অধিনায়ক কার্লোস পিউলও মেসির প্রতি সমর্থন প্রকাশ করেছেন। মেসির প্রাক্তন সতীর্থ কার্লোস পিউল টুইট করেছেন, ‘লিও, আপনার প্রতি শ্রদ্ধা ও শ্রদ্ধা। সর্বদা সমর্থন থাকবে, বন্ধু! ‘মেসির বর্তমান সতীর্থ লুইস সুয়ারেজ পিউলের টুইটের জবাবে হাততালি ইমোজি দিয়েছেন।

এসএএস / জেআইএম