শোক-শ্রদ্ধায় চট্টগ্রামে জাতির পিতাকে স্মরণ

চট্টগ্রাম-3.jpg

চট্টগ্রামের মানুষ বঙ্গবন্ধুর ৪৫ তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে গভীর শোক ও শ্রদ্ধার সাথে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ করছেন। বন্দর নগরীতে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালিত হচ্ছে।

দিবসটি উপলক্ষে শনিবার (১৫ আগস্ট) সূর্যোদয়ের সময় সমস্ত সরকারী, আধা-সরকারী ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে অর্ধ মাস্টে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর Marchতিহাসিক March ই মার্চের ভাষণ, কোরআন তেলাওয়াত ও দেশাত্মবোধক গানগুলি মাইকটিতে পুরো শহর জুড়ে প্রচারিত হয়েছিল।

সকাল ১১ টায় নগরীর শিল্পকলা একাডেমির প্রাঙ্গণে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিবস শুরু করেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ। এই সময়ে বাগলে একটি করুণ সুর বাজানো হয়েছিল। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) একটি স্মার্ট দল এ সময় অভিবাদন জানায়।

পরে সিএমপি কমিশনার জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। মাহাবুবর রহমান। চট্টগ্রাম প্রশাসনের পর জেলা প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক অতিরিক্ত ডিআইজি মো। ইলিয়াস হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো। শাহাবুদ্দিন, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের কমান্ডার মোজাফফর আহমেদ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জাতির পিতার প্রতি।

এরপরে চট্টগ্রামের বিভিন্ন সরকারী সংস্থা ফুল দিয়ে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা জানায়। এটি পরে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছিল।

স্থানীয় প্রশাসন, আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলি বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো, শোক সমাবেশ, আলোচনা সভা, দরিদ্রদের মাঝে খাবার বিতরণ সহ বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করে।

চট্টগ্রাম-3.jpg

ক্ষতিগ্রস্থদের আত্মার শান্তি কামনা করতে মিলাদ মাহফিলেরও আয়োজন করা হয়েছে। একইভাবে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় একই কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

এদিকে, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সকাল ১০ টায় নগরীর দোস্ত ভবনে দলীয় কার্যালয়ে কোরআন তেলাওয়াত, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। এছাড়াও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ে কোরআন খতম, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে।

আবু আজাদ / এফআর / এমএস