হাঁড়ি গোশতের রান্নাঘরে দুর্গন্ধ, পচা সবজিতে তৈরি হচ্ছে খাবার

jagonews24

হ্যান্ডি গোশত একটি ক্যাটারিং সার্ভিস সংস্থা যা বাংলা, চীনা, থাই এবং ভারতীয় খাবারের জন্য পরিচিত। তেলাপোকা সুপরিচিত সংস্থার রান্নাঘরে ঘুরে বেড়াত এবং একটি দুর্গন্ধযুক্ত পরিবেশের সন্ধান পাওয়া গেল।

কোম্পানির চুলার পাশে অপরিচ্ছন্ন ড্রেন। বাসি খাবার সংরক্ষণ, রান্না করা এবং কাঁচা মাংস একই ফ্রিজে রাখা হয়। পচা শাকসব্জি দিয়ে খাবার বানানো।

রবিবার রাজধানীর আরকে মিশন রোডের গোপীবাগ এলাকার একটি রেস্তোঁরায় এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের (বিএফএসএ) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জ্যোতিশ্বর পাল অপারেশনে এমন দৃশ্য দেখেছিলেন। এই অপরাধের জন্য মাংসের মাংসের রেস্তোঁরা ও ক্যাটারিং পরিষেবাকে তিন লাখ রুপি জরিমানা করা হয়েছিল।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জ্যোতিশ্বর পাল জানিয়েছেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম চলাকালীন রেস্তোঁরাটির রান্নাঘরটি অত্যন্ত নোংরা এবং দুর্গন্ধযুক্ত বলে মনে হয়েছিল।

এছাড়াও চুলা, বাসি খাবারের সঞ্চয়, কাঁচা মাংস একই ফ্রিজে রান্না করা এবং অখাদ্য পচা শাকসব্জী এবং তেলাপোকের ঘোরাঘুরি দ্বারা নোংরা ড্রেন রয়েছে। রেস্তোঁরা কর্তৃপক্ষ কোনও আপডেট সরবরাহ করতে সক্ষম হয়নি।

‘হাম্রি গোশত রেস্তোঁরা ও ক্যাটারিং সার্ভিস’-এর ব্যবস্থাপককে তিন লাখ টাকা জরিমানা না দেওয়ার কারণে তিন মাসের কারাদন্ডে দন্ডিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে সংশোধনের জন্য কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করা হয়েছিল।

অভিযানের সময় সেফ ফুড ইন্সপেক্টর মিজানুর রহমান ও ব্যাটালিয়ন আনসার সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এসআই / বিএ / এমকেএইচ

করোনার ভাইরাস আমাদের জীবন বদলে দিয়েছে। আনন্দ, বেদনা, সংকট, উদ্বেগ নিয়ে সময় কাটায়। আপনি কিভাবে আপনার সময় কাটাচ্ছেন? জাগো নিউজে লিখতে পারেন। আজ পাঠান – [email protected]