৫ মাস পর হলে এসে ছাত্রীরা দেখেন জিনিসপত্র ও সার্টিফিকেট গায়েব

টাঙ্গাইল-বিটিইসি- (2) .jpg

টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের শিক্ষার্থীদের বাসায় এই চুরির ঘটনা ঘটে। কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারণে চোর শিক্ষার্থীদের মূল্যবান শংসাপত্রসহ কয়েক লাখ টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।

ক্ষতিপূরণ সহ যথাযথ ব্যবস্থা না নেওয়া হলে শিক্ষার্থীরা আন্দোলনের ডাক দিয়েছে। তবে কলেজ কর্তৃপক্ষ এই অবহেলা অস্বীকার করেছে এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, বিভিন্ন বিভাগের ২ 26 জন শিক্ষার্থী প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষের বাসভবন থেকে ২৫ গজ দূরে অবস্থিত হলের দোতলা ভবনের সাতটি কক্ষে থাকতেন। করোনার কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণার আগের দিন 18 মার্চ তারা হল ছেড়ে যায়। দীর্ঘ পাঁচ মাস পর, শিক্ষার্থীরা শুক্রবার হলটিতে এসে দেখল যে তাদের জিনিসপত্র প্রতিটি ঘরে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। কোনও মূল্যবান জিনিসপত্র এবং শংসাপত্র নেই।

শিক্ষার্থীদের মতে, ঘটনার 24 ঘন্টা পরেও অধ্যক্ষ ঘটনাস্থলে আসেননি। কোনও ব্যবস্থা না নিয়ে ঘটনাটি আড়াল করার চেষ্টা চলছে। এর আগে মহিলা ছাত্রীদের ছাত্রাবাসে একাধিকবার এই চুরির ঘটনা ঘটেছিল তবে কর্তৃপক্ষ কোনও ব্যবস্থা নেয়নি।

তবে কলেজের অধ্যক্ষ এ গাফিলতির বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। বকতিয়ার হোসেন জানান, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান আল মামুন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। কলেজ কর্তৃপক্ষ লিখিত অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরিফ উর রহমান টগর / এএম / এমএস